বাংলাদেশের হিন্দু সমাচার

বাংলাদেশের হিন্দুদের এক পা ভারতে; মুসলমানদের এক পা কবরে। তিতা সত্য!

বাংলাদেশের হিন্দুরা ভারতপ্রেমী, ভারতে টাকা পাচার করে–মুসলমানদের মধ্যে এমন একটা কথা চালু আছে বেশ ভালো ভাবেই। কিন্তু হিন্দুরা জন্মভূমি কেন ত্যাগ করে ভারতে যেতে বাধ্য হয়–এই কথাটা দেশের মুসলমানরা ভেবে দেখছে কখনো? মুসলমানরা জানে হিন্দুরা ভারতে যাবেই, এবং সেজন্য খুশিই হয়। উলটা ‘হিন্দুদের দেশপ্রেম নেই’ বলে একটা ভাব নেয়।

কয়টা হিন্দু তার বিষয়সম্পত্তি, জায়গা-জমি সঠিক মূল্যে বিক্রি করতে পারে, বিক্রির কত পার্সেণ্ট টাকা হাতে পায়, শেষ পর্যন্ত কত পার্সেণ্ট টাকা নিয়ে ভারতে পাড়ি জমাতে পারে?

যা বলছিলাম, বাংলাদেশের হিন্দুদের এক পা ভারতে থাকলে মুসলমানদের এক পা কবরে–হিন্দুরা বাংলাদেশে নিরাপদে নাই, (প্রাণ হাতে নিয়ে ভারতে পালায়। ভারতে গিয়েও যে ভালো থাকে, তা নয়। তবুও ধর্ম আর প্রাণটা তো বাঁচল!) মুসলমানরাও কি নিরাপদে আছে? দেশে বিন্দুমাত্র জীবনের নিশ্চয়তা আছে কারো?

খবরে প্রকাশ–মৌলভিবাজারে ধর্মান্তরিত হতে হিন্দু পরিবারকে হুমকি দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশে মুসলমানরাই নিরাপদে নাই, সেখানে হিন্দুরা ধর্মান্তরিত হয়ে বাংলাদেশে থেকে গেলেই কি নিরাপদে থাকবে? অবশ্য ভারতও যে তার জনগণের জান ও মালের ১০০% নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছে, তা-ও নয়।

শুধু হিন্দুরা নয়, সেসব মুসলমানের সামর্থ আছে, তারাও পারলে বাংলাদেশ ত্যাগ করে। যারা ইউরোপ-আমেরিকা বা বাংলাদেশের চেয়ে ভালো দেশে যেতে পারছে, তারা কেউ-ই দেশে ফিরতে চায় না, বরং পরিবারের আর সবাইকেও দেশের বাইরে নিয়ে যায়। কিন্তু জানের মায়ায় দেশ ছাড়ার ব্যাপারে দোষটা হয় শুধু হিন্দুদের।

আর টাকা পাচার? বাকিসব ধনী মুসলমানদের কথা বাদ-ই দিলাম–এক শেখ পরিবারের বেয়াই নুলা মুসার যে পরিমান টাকা দেশের বাইরে আছে, দেশের সব হিন্দুদের বিক্রি করলেও কি তার সমান হবে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *